Saturday , June 15 2024
Home / Countrywide / ওসিকে দিতে হলো ১ টাকা জরিমানা, জানা গেল কারন

ওসিকে দিতে হলো ১ টাকা জরিমানা, জানা গেল কারন

আমিনপুর থানায় কর্মরত ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জনাব রওশন আলীকে ( Mr. Raushan Ali ) টানা ছয়বার তলব করার শর্তেও তিনি সাক্ষ্য দিতে না আসায় তাকে এক টাকা জরিমানা করা হয়। আজ দুপুরে  অর্থাৎ (মঙ্গলবার ) ৮ মার্চ রাজশাহী সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোঃ জিয়াউর রহমান ( Md. Ziaur Rahman ) এই শাস্তি প্রদান করেন। তিনি বলেন আদালতের মূল্যবান সময় নষ্ট করার এখতিয়ার কোন ব্যক্তির নাই। সঠিক সময়ে বিচার কার্য সম্পাদন করতে হলে সবাইকে তার নিজ দায়িত্ব পালন করতে হবে।

জরিমানা না দিলে আদালতের কার্যক্রম যতদিন চলবে ততদিন কারাদণ্ডেরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওসিকে। তবে পুলিশ ( police ) পরিদর্শক রওশন আলী এক টাকা জরিমানা দিয়েছেন। পরে আদালতের উপস্থাপক হেমন্ত বর্মণ ( Hemant Varman ) সোনালী ব্যাংকের ( Sonali Bank ) মাধ্যমে রাষ্ট্রীয় কোষাগারে টাকা জমা দেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইসমত আরা ( Ismat Ara ) এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, রওশন আলী এর আগে পাবনা জেলা পুলিশ ( police )ের ( Pabna District Police ) গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি ( DB )) কর্মরত ছিলেন। নিরাপদ সড়কের আন্দোলন নিয়ে ফেসবুকে ( Facebook ) গুজব ছড়ানোর অভিযোগে ২০১৮ সালের  ৬ আগস্ট ( August ) এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর তিনি মামলা করেন। মামলায় অন্য সব সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করেছেন আদালত। তবে তদন্তে সাক্ষী হিসেবে সাক্ষ্য দিতে পরপর ছয়বার তলব করা হয় রওশন আলীকে। কিন্তু তিনি আদালতে আসেননি। পরে আদালতের তলবের ছবি রওশন আলীর মোবাইলে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠায় আদালত। তিনিও কোনো উত্তর না দিয়ে সাক্ষ্য দেওয়া থেকে বিরত থাকেন। ফলে মামলার স্বাভাবিক কার্যক্রম ব্যাহত হয়।

তাই গত ২৬ জানুয়ারি তাকে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠান আদালত। তার বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে না জানতে চেয়ে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এরপর মঙ্গলবার মামলার দিন ধার্য করে হাজির হন ওসি। এ সময় তিনি ক্ষমা চান। তবে এর আগে সমন অবমাননার রেকর্ড থাকায় এবং তাতে কোনো অনুশোচনা না থাকায় বিচারের স্বার্থে আদালত ওসিকে জরিমানা করেন।

তবে আদালতে উপস্থিত পাবনার আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলী কেন হাজির হননি জানতে চাইলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

প্রসঙ্গত, সবাইকে আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়া উচিত। দেশের আইনের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে প্রত্যেকে তার যথাযথ দায়িত্ব পালন করলে আইন ও বিচার ব্যবস্থা গতিশীল হবে। সকল শ্রেনীর মানুষ তার প্রতি অন্যায়ের যথাযথ বিচার হওয়া উচিত বলে মনে করেন সকল শ্রেনীর মানুষ।

About bisso Jit

Check Also

মসজিদের ইমামের কোনো দোষ নেই, জবির সেই আলোচিত ছাত্রী

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো. ছালাহ উদ্দিনকে এক ছাত্রীকে ঘিরে বিতর্কিত ঘটনার জের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *