Tuesday , June 25 2024
Home / Countrywide / তিন সন্তানের জন্ম দিলেন এক পাগলি, তার রইলো না একটিও

তিন সন্তানের জন্ম দিলেন এক পাগলি, তার রইলো না একটিও

গত  ১৪ মার্চ রাতে তিন সন্তানের জন্মদেন এক মানুষিক প্রতিবন্ধী নারী। তিন সন্তানের মধ্যে দুইটি সন্তানকে দুইটি নি:সন্তান দম্পতি দত্তক নেন। তবে আরেকটি সন্তান নিখোঁজ। এই ঘটনাটি ঘটে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ।গত এক বছর যাবত ওই নারী পাবনার বেড়া উপজেলার আমিনপুর ( Aminpur ) এলাকায় রাস্তায় রাস্তায় গুরে বেড়াত। হটাত করে লক্ষ করা যায় তিনি অন্ত:স্বত্বা। তরপর তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় ওই এলাবাসিরা।এবং হাসপাতাল কৃতিপক্ষ তাকে ভর্তি নেয় এবং তার চিকিৎসার খরছ বহন করেন।

প্রায় সময় তিনি থাকতেন হাসপাতালের বারান্দায় বা সিঁড়িতে। রোগীর স্বজন বা হাসপাতালের কর্মচারীরা তাকে খাবার দিতেন।

সোমবার রাতে  হাসপাতালে তিন সন্তানের জন্ম দেন ওই প্রতিবন্ধী নারী। কিন্তু মাঝরাতে এক নবজাতক চুরি হয়ে যায়। বাকি দুই নবজাতককে দুই নিঃসন্তান দম্পতি দত্তক নিয়েছেন।

দত্তক দম্পতি জানান, মানসিক প্রতিবন্ধী ওই মহিলার কাছ থেকে সন্তান দুটিকে বড় করার জন্য দত্তক নিয়েছেন তারা।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ নার্স আফরোজা পারভীন ( Afroza Parveen ) জানান, অজ্ঞাত পরিচয়ে ওই প্রতিবন্ধী নারী কয়েকদিন ধরে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। নার্সরাও তার দেখাশোনা করেন। আমি শুনেছি যে মহিলা তিনটি পুত্রের জন্ম দিয়েছেন।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের সহকারী পরিচালক ওমর ফারুক মীর ( Omar Farooq Mir ) জানান, ওই নারীকে হাসপাতালে ভর্তি করে নিয়মিত খাবার ও ওষুধ দেওয়া হয়। সে মানসিক প্রতিবন্ধী হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ভর্তি করেছে। মিডওয়াইফরাও ধাত্রী হিসেবে তার দেখাশোনা করতেন। তিনি অবহেলিত বা মুক্তি পাননি।

ওই নারী তিন সন্তানের জন্ম দিয়েছেন বলে স্বীকার করে তিনি বলেন, হাসপাতালে জনবল স্বল্পতার কারণে নানা সীমাবদ্ধতার মধ্য দিয়ে কাজ করতে হচ্ছে। নবজাতক চুরির বিষয়টি তিনি অবগত  আছেন। বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে নিচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নবজাতক চুরিকারীকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে।

উল্লেখ্য, চুরি হওয়া সন্তানটিকে খুজেবের করার জন্য সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সন্তান চুরি যাওয়ার বিষয় সম্পর্কে জানতে চাইলে পবনা ( Pabna ) সদর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম ( Aminul Islam ) বলেন, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এখনো কোন অভিযোাগ দায়ের করেনি। এই ঘটনার খবর পেয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ ( police ) । এ ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত  ব্যাবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

About Nasimul Islam

Check Also

মসজিদের ইমামের কোনো দোষ নেই, জবির সেই আলোচিত ছাত্রী

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো. ছালাহ উদ্দিনকে এক ছাত্রীকে ঘিরে বিতর্কিত ঘটনার জের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *