Monday , June 24 2024
Home / Countrywide / লাখ টাকায় বিক্রি করে দেওয়া সেই কন্যা সন্তানকে ফিরে পেলেন বাবা মা

লাখ টাকায় বিক্রি করে দেওয়া সেই কন্যা সন্তানকে ফিরে পেলেন বাবা মা

সম্প্রতি, অভাবের তাড়নায় পড়ে বাবা-মা বিক্রি করে দিয়েছিলেন এক বছরের কন্যা শি”শুকে। কারণ ছিল দুর্ঘটনার পরে অসুস্থ থাকায় কাজ করতে পারছিলেন না, শি”শুটির বাবা। তারপরে তিনি অধিক ঋণগ্রস্ত হয়ে যান। এজন্য তিনি বিক্রি করেছিলেন, লক্ষ টাকার বিনিময়ে তার কন্যাকে। বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়ার পরপরই পুলিশের ( police ) নজরে আসে।

তারপর বিক্রি হওয়া শি”শুকে ফেরত দিয়েছে পুলিশ। বুধবার বেলা ১১টার দিকে হাজীগঞ্জ ( Hajiganj ) থানায় আক্তার মিনাকে ( Mina ) তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এর আগে মঙ্গলবার ( Tuesday ) বিভিন্ন গণমাধ্যমে ঋণ ও চিকিৎসার খরচ মেটাতে এক বছরের মেয়েকে বিক্রি করে দিচ্ছেন বাবা, শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। হাজীগঞ্জ ( Hajiganj ) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোমেনা আক্তার ( Momena Akhter ) ও হাজীগঞ্জ ( Hajiganj ) থানার ওসি জুবায়ের সৈয়দ ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মেয়েটিকে উদ্ধার করে তার বাবা-মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেন।

পুলিশের ( police ) উপ-পরিদর্শক নিজাম জানান, রাতে রাজধানীর শাহজাহানপুর এলাকায় ডিএমপি পুলিশের ( police ) ( DMP police ) সহায়তায় কন্যা সন্তানকে উদ্ধার করা হয়। তবে মেয়েটি যারা কিনেছেন, তারা ওই সময় বাড়িতে ছিলেন না। তাদের কাজের বুয়ার থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। সাবেক কাউন্সিলর রায়হানুর রহমান জনি ( Rahman Johnny ) বলেন, সন্তানটিকে উদ্ধার করতে তিনি পুলিশের  সঙ্গে ঢাকায় ( Dhaka ) গিয়েছিলেন।

দুই মেয়ে ও স্ত্রী নিয়ে বশীর মজুমদারের ( Bashir Majumdar ) সংসার। সড়ক দুর্ঘটনায় তার পা ভেঙে যায়। পরে রড সংযুক্ত করা হয়। টাকার অভাবে সে রড খুলতে পারছে না। বিভিন্ন ব্যক্তি ও এনজিওর প্রায় ৫ লাখ টাকার ঋণ রয়েছে। চিকিৎসা খরচ ও ঋণ মেটাতে তিনি তার এক বছরের মেয়ে মিনাকে  বিক্রি করে দেন। মেয়েটি পাওয়ার পর, মা আছমা বেগম ( Achma Begum ) বলেন, আল্লাহর রহমতে মিনাকে ( Mina ) কোলে ফিরে পেয়েছি। গত সোমবার  চাঁদপুরে ( Chandpur ) কোট এফিডেভিটের মাধ্যমে সন্তানকে বিক্রি করেছিলেন তারা।

পুলিশের  উপ-পরিদর্শক জানান, এলাকার মানুষের সহায়তায় ও সাবেক কাউন্সিলর জনি ( Johnny ) ভাই এর কাছ থেকে তথ্য নিয়ে শিশুটির পারিবারিক ব্যাপার জানতে পারি। তারপর কন্যা সন্তানের বিক্রির খবর সম্পর্কে নিশ্চিত হই। পরে আমার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সহায়তায় ডিমপি পুলিশের ( police ) সঙ্গে যোগাযোগ করি। পরবর্তীতে ঢাকায় ( Dhaka ) গিয়ে ডিমপি পুলিশের  সহায়তায় তাকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারের পরবর্তীতে কন্যা সন্তানটিকে তার মায়ের কোলে ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

About bisso Jit

Check Also

মসজিদের ইমামের কোনো দোষ নেই, জবির সেই আলোচিত ছাত্রী

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো. ছালাহ উদ্দিনকে এক ছাত্রীকে ঘিরে বিতর্কিত ঘটনার জের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *