Thursday , May 23 2024
Breaking News
Home / Countrywide / ভিডিও ধারণ করে গৃহবধূর সর্বনাশ করলেন যুবক

ভিডিও ধারণ করে গৃহবধূর সর্বনাশ করলেন যুবক

কিছু খারাপ চরিত্রের পুরুষের কারণে নারীরা প্রায় সময় বড় রকমের সমস্যার মধ্যে পড়ছে। এমনকি ই সকল খারাপ চরিত্রের পুরুষরা গৃহবধূর সঙ্গে খারাপ সম্পর্ক করার চেষ্টা করে। আর একটা সময় যখন কোনো গৃহবধূর সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলে ঠিক ওই সময় খারাপ ভিডিও করে তা ধারন করে। একটা সময় সেই ভিডিও দেখিয়ে ওই গৃহবধূর সঙ্গে আবারো খারাপ কাজ করার চেষ্টা করা হয়। এবর তেমনি এক যুবকের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তিনি নাকি এক গৃহবধূর সঙ্গে খারাপ কাজ করার চেষ্টা করে। অবশেষে সেই যুবক আটক হয়েছেন। এবার এই বিষয়ে বিস্তারিত সংবাদ প্রকাশ পেল।

বগুড়ার শেরপুরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে এক গৃহবধুর খারাপ ভিডিও হাতিয়ে নিয়ে ব্লা”ক”মেইল করার অভিযোগে এক প্রতারককে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি)। গ্রেফতারকৃত যুবকের নাম মাহমুদ মুন্না (২৫)। সে পৌরসভার পূণ্যাতলা শ্রীরামপুর গ্রামের জমশের আলীর ছেলে। সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এর আগে রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) রাতে শেরপুর বাসষ্ট্যান্ড শেরপুর প্লাজার সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

জানা যায়, স্থানীয় একটি মোবাইলের দোকানে ওই গৃহবধূকে প্রথম দেখাতেই পছন্দ করে মুন্না। পরে গোপনে গৃহবধুর ফেসবুক আইডি সংগ্রহ করে ফ্রেন্ড রিকুয়েস্ট পাঠায় এবং পরবর্তীতে তারা একে অপরের সাথে কথা বলা শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে ভিডিও-অডিও কলে কথা বলাসহ প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সম্পর্কের এক পর্যায়ে গৃহবধূকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গো”প’ন ছবি ও ভিডিও দাবি করে মুন্না।

এতে প্রথমে এসব কাজে রাজি না হলেও এক পর্যায়ে মুন্নার বারবার বিয়ের প্রলোভনের কথা বিশ্বাস করে খারাপ অবস্থায় ভিডিও কলে আসতে রাজি হোন ওই গৃহবধূ। এই সুযোগে অ্যাপের মাধ্যমে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখে মুন্না। পরে সেই ভিডিও ও ছবি ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ওই গৃহবধূকে শা”রি”রী”ক সম্পর্ক বাধ্য করার জন্য ব্লা”ক মেইল করতে থাকে।

একপর্যায়ে ওই গৃহবধু বগুড়া ডিবি পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। পরে ডিবি পুলিশের সাইবার টিম তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে শেরপুর থেকে মুন্নাকে গ্রেফতার করে। শেরপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শহিদুল ইসলাম জানান, মামলা দায়ের করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে অনেক নারী বর্তমানে এই সমস্যায় পড়ছেন। যার কারণে একটা সময় ওই নারীর খারাও ছবি অন্য পুরুষের হাতে যাচ্ছে। এভাবে প্রতিনিয়ত খারাপ সম্পর্কে জরানোর চেষ্টা করছে অন্য পুরুষ। এ জন্য সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নারী ও পুরুষ উভায়কে অধিক সচেতন থাকতে হবে। কেননা এমন ভিডিও ও ছবি নিয়ে যে কোনো ব্যক্তি খারাপ কাজ করার কথা বলতে পারে। এছাড়া অনেকে এমন ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিতে পারে। এ জন্য সমাজাইক যোগাযোগ মাধ্যমে অপরিচিত ব্যক্তিদের সঙ্গে যোগাযোগ করার আগে অবশ্যই বেশি বেশি করে ভাবতে হবে।

About

Check Also

লু এলেন, ভাবলাম সম্পর্ক ভালো করতে চায় কিন্তু নিশিরাতে স্যাংশন দিলো: কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, মিঃ ডোনাল্ড লু ঢাকায় এসেছেন, আমি ভেবেছিলাম তারা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *