Friday , May 24 2024
Breaking News
Home / National / সেপ্টেম্বরে জব্দকৃত দ্রব্যের মোট অর্থের পরিমান জানালো বিজিবি

সেপ্টেম্বরে জব্দকৃত দ্রব্যের মোট অর্থের পরিমান জানালো বিজিবি

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সীমান্ত এলাকার নিরাপত্তা প্রদানে আপ্রান ভাবে কাজ করে থাকে। সংক্ষেপে এই বর্ডার গার্ডকে (বি/জি/বি) বলা হয়ে থাকে। দেশকে নিরাপত্তা দেওয়ার লক্ষ্যে তারা দিন-রাত নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সম্প্রতি এই বা/হি/নী/টি/ সেপ্টেম্বর মাসে সী/মা/ন্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে মোট জ/ব্দ/কৃ/ত দ্যব্যের সম্পদের পরিমান জানালো।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বি/জি/বি) সেপ্টেম্বরে দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে অভিযান চালিয়ে প্রায় ১০৭ কোটি টাকার চো/রা/চা/লা/ন দ্রব্য জ/ব্দ করেছে। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানিয়েছে বাহিনীটি। সেখানে বলা হয়, ১০৬ কোটি ৯৮ লাখ ৩৮ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন ধরনের চো/রা/চা/লা/ন পণ্য সামগ্রী, অ/স্ত্র ও গো/লা/বা/রু/দ এবং মা/দ/ক/দ্র/ব্য জ/ব্দ করা হয়। জ/ব্দ মা/দ/কে/র মধ্যে রয়েছে ২০ লাখ ৩ হাজার ৭৮৭ পিস ই/য়া/বা, ২ কেজি ৯৫ গ্রাম ক্রি/স্টা/ল মে/থ, ২২ হাজার ৩৬৮ বোতল ফে/ন/সি/ডি/ল, ১৫ হাজার ৬৮৪ বোতল বি/দে/শি ম/দ, ২ হাজার ৯৩৮ ক্যা/ন বি/য়া/র, ১ হাজা ৫৬৫ কেজি ৯৬৫ গ্রাম গাঁ/জা, ৯ কেজি ১৫৫ গ্রাম হে/রো/ই/ন, ১৩ হাজার ৯৯টি ইনজেকশন, ৭ হাজার ৪৯৭টি ই/স্কা/ফ সিরাপ, ১২৫ বোতল এমকেডিল বা কফিডিল, ৪৯ হাজার ৬৭৫টি এ্যানেগ্রা বা সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ১ লাখ ৭৫ হাজার ১০২টি অন্যান্য ট্যাবলেট। অন্যান্য চোরাচালানের মধ্যে রয়েছে ৬ কেজি ৬৮ গ্রাম স্বর্ণ, ৫৩ কেজি ৬০০ গ্রাম রুপা, ১ লাখ ১৮ হাজার ২০৫টি কসমেটিকস সামগ্রী, ৪ হাজার ৮৪২টি শাড়ি, ২ হাজার ৩৩৫টি থ্রিপিস-শার্টপিস, ৪১০ মিটার থান কাপড়, ১১২টি তৈরি পোশাক, ৩ হাজার ৩৭৮ ঘনফুট কাঠ, ১০ হাজার ৮২৬ কেজি চা পাতা ও ২৬ হাজার ৫০ কেজি কয়লা।

আরও রয়েছে ৫টি ট্রাক-কাভার্ডভ্যান, ১০টি প্রাইভেটকার-মাইক্রোবাস, ৮টি পিকআপ, ৬০টি সিএনজি-ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ৭০টি মোটরসাইকেল। উদ্ধার করা অ/স্ত্রে/র মধ্যে রয়েছে ৩টি পি/স্ত/ল, ৫টি বিভিন্ন প্রকার গান, ৫টি ম্যাগাজিন ও ১২ রাউন্ড গু/লি। এ ছাড়া সীমান্তে বি/জি/বি/র অভিযানে ই/য়া/বা/সহ বিভিন্ন প্রকার মা/দ/ক পা/চা/র ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ৩৪৫ জন এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ২২১ জন বাংলাদেশি ও ৯ জন ভারতীয় নাগরিককে আ/ট/কে/র পর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

দেশে কিছু অবৈধ ব্যক্তি রয়েছে তারা নিজেদের স্বার্থ লাভের আশায় নানা ধরনের অপরাধ কর্মকান্ড পরিচালনা করছে। এবং এক দেশ থেকে অন্য দেশে নানা ধরনের অবৈধ এবং সরকারের তালিকাভূক্ত নি/ষি/দ্ধ জিনিসপত্র আদান-প্রদান করেছে। তবে প্রায় ক্ষেত্রে এই সকল ব্যক্তিরা নি/ষি/দ্ধ জিনিসপত্র সহ বর্ডার গার্ডের কাছে আ/ট/ক হচ্ছে। অবশ্যে এই সকল অনিয়ম প্রতিরোধে আপ্রান ভাবে কাজ করে যাচ্ছে (বি/জি/বি)।

About

Check Also

এফ রহমানের মিথ্যা দাবিকে উড়িয়ে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র

স্টেট ডিপার্টমেন্ট এবং হোয়াইট হাউস র‌্যাবের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের জন্য কাজ করছে – প্রধানমন্ত্রীর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *