Thursday , May 23 2024
Breaking News
Home / Entertainment / ভারী দেহই ভালোবাসি, আমি সব সময় ভাঁজবহুল শরীর পছন্দ করি: নোরা ফাতেহি

ভারী দেহই ভালোবাসি, আমি সব সময় ভাঁজবহুল শরীর পছন্দ করি: নোরা ফাতেহি

বর্তমান সময়ে বলিউডের অন্যতম ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী এবং নৃত্যশিল্পী নোরা ফাতেহি। তিনি মূলত একজন কানাডিয়ান। ভিনদেশের নাগরিক হয়ে বলিউডে নিজের শক্ত অবস্থান গড়ে তুলেতে সক্ষম হয়েছেন এই অভিনেত্রী। ইতিমধ্যে তিনি বলিউডের বেশ কয়েকটি সিনেমার আইটেম গানে কাজ করেছেন। সম্প্রতি তার ক্যারিয়ার শুরুর জীবনে বেশ কিছু অজানা কথা উঠে এসেছে প্রকাশ্যে।

তাঁর নাচে বুঁদ বলিউড। কোনো গানের সঙ্গে নাচেন তো, তা–ও হিট। নোরা ফতেহি—কানাডিয়ান এই অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী এখন বলিউডের আইটেম গানের অন্যতম ভরসা। শুধু যে নাচেন, তা–ই নয়, অন্যের নাচের বিচারও করেন। ভারতীয় টেলিভিশন চ্যানেলের নাচের রিয়েলিটি শোগুলোয় মাঝেমধ্যেই তাঁকে বিচারকের আসনেও দেখা যায়। অথচ নাচের প্রাতিষ্ঠানিক কোনো শিক্ষাই তাঁর নেই।
ইউটিউবই ছিল ভরসা। আর শুধু নাচ নয়, ইনস্টাগ্রামেও সৌন্দর্যের ছটা ছড়ান নোরা। ইদানীং আবার অভিনয়েও ঝুঁকছেন। সব মিলিয়ে অনেক বড় বড় বলিউড তারকার চেয়ে ইনস্টাগ্রামে তাঁর অনুসারী বেশি। তবে এই জায়গায় আসতে নোরাকে কম কষ্ট করতে হয়নি। একসময় হোটেল ওয়েট্রেসের কাজও করেছেন। সম্প্রতি রিয়েলিটি শো ‘স্টার ভার্সেস ফুড’–এ হাজির হয়ে সেই দিনগুলোর কথাই শোনালেন এই আইটেম গার্ল। তিনি জানালেন, ১৬ থেকে ১৮ বছর বয়স পর্যন্ত তিনি ওয়েট্রেসের কাজ করেছেন। তিনি বলেন, ‘ওয়েট্রেস হওয়া সোজা কথা নয়। আপনাকে যোগাযোগে দক্ষ হতে হবে। থাকতে হবে ব্যক্তিত্ব। দ্রুত কাজ করার ক্ষমতাও আপনাকে রাখতে হবে। সবকিছু মনে রাখার সক্ষমতাও তৈরি করতে হবে।’

নোরা আরও জানান, ওয়েট্রেসের কাজ করা তাঁর মূল উদ্দেশ্য ছিল না। এটা ছিল বাড়তি আয়ের একটা উৎস। কানাডার সংস্কৃতিতে এটা খুবই সাধারণ ব্যাপার। সবাই কাজ করে। স্কুলে যায়, পাশাপাশি কাজও করে। যেহেতু অনুষ্ঠানটা মূলত রান্নাবান্না বিষয়ক, তাই স্বভাবতই খাওয়াদাওয়ার প্রসঙ্গও উঠেছিল। দেখা গেল, এই ব্যাপারেও তিনি বেশ আগ্রহী। ডায়েটিংয়ের ধার তিনি ধারেন না। এ কারণে আর দশটা নারীর তুলনায় তাঁর শরীরটা একটু পৃথুল। আর এ জন্য প্রায়ই তাঁকে প্রশ্ন শুনতে হয়। এটা নিয়েও বললেন নোরা, ‘আমি এমন এক সংস্কৃতি থেকে এসেছি, যেখানে হাড্ডিসার শরীরকে ভালো চোখে দেখা হয় না। আমরা ভারী নারীদেহই ভালোবাসি। আমি সব সময়ই পৃথুল ও ভাঁজবহুল শরীর পছন্দ করি। এ কারণে সব সময় ওজন বাড়াতে চেষ্টা করি। এটাই আমাদের সংস্কৃতির মানসিকতা। এ কারণে আমরা খেতেই থাকি।’ সামনে সত্যমেব জয়তে টু ছবিতে নোরাকে দেখা যাবে। জন আব্রাহাম অভিনীত ছবিটি মুক্তি পাবে আগামী ২৬ নভেম্বর। এর আগে সত্যমেব জয়তে সিনেমার ‘দিলবার’ গানটি দিয়েই প্রথম ঝড় তুলেছিলেন নোরা।

বিশ্ব জুড়ে পরিচিত ভারতের বলিউড। এই মাধ্যমটি একটি প্রতিযোগিতাপূর্ন জায়গা। এই বিনোদন মাধ্যমে টিকে থাকতে প্রতিনিয়ত অভিনেতা-অভিনেত্রীরা একে অন্যের সাথে প্রতিযোগিতায় জড়িয়ে পড়ে। অবশ্যে এই মাধ্যমে টিকে থাকতে হলে অক্লান্ত পরিশ্রম এবং দর্শক জনপ্রিয়তার গুরুত্ব অপরীসিম।

About

Check Also

হিট স্ট্রোক করে হাসপাতালে শাহরুখ খান, জানা গেল তার শারীরিক অবস্থা এখন কেমন

অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। রাইডার্সের প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচের পর হিট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *