Monday , June 24 2024
Home / Countrywide / প্রবাসী স্বামীর সর্বস্ব নেওয়ার পর প্রেমিকের সাথে উধাও হলেন স্ত্রী

প্রবাসী স্বামীর সর্বস্ব নেওয়ার পর প্রেমিকের সাথে উধাও হলেন স্ত্রী

সন্তানদেরকে সাথে নিয়ে সৌদিতে প্রতিষ্ঠা পাওয়া স্বামী শাহ আলমের নিকট যাওয়ার সকল ধরনের প্রস্তুতি সমাপ্ত। এর মাঝেই ঘটেছে ঘটনাটি। সৌদি আরব যাওয়ার তারিখ পড়েছে, স্ত্রী এই সুযোগটি বেছে নেয়। তিনি তার স্বামীর সর্বস্ব নিয়ে তার পরকীয়া করা প্রেমিকের হাত ধরে রাতের অন্ধকারে উধাও হয়ে যান। স্বামী তাকে নিয়ে সৌদি আরবে থাকবেন আর এই সময় ঘটনাটি ঘটিয়েছেন, যেটা ইতিমধ্যেই কক্সবাজার জেলা সদরের চৌফলদণ্ডী কালু ফকিরপাড়া এলাকায় বেশ আ’লো/ড়নের সৃষ্টি করেছে।

গত সোমবার অর্থাৎ ৪ অক্টোবর ভোর রাত ৪ টার দিকে তিনি তার স্বামীর নগদ ৬ লাখ টাকা, ১১ ভরি ওজনের স্বর্ণালঙ্কার, একটি মোবাইল ফোন এবং অন্যান্য মূল্যবান জিনিসপত্র নিয়ে পা’/লি’য়ে গিয়েছেন। তিনি দুই বছরের একটি সন্তানকে সঙ্গে নিয়ে যান।

গৃহবধূকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজার পর পরদিন মঙ্গলবার সকাল থেকে কক্সবাজার সদর থা’/নায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। নিখোঁজ গৃহবধূ সদর উপজেলার চৌফলদণ্ডী ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের সৌদি প্রবাসী শাহ আলমের স্ত্রী। তাদের দুই বছর বয়সী একটি মেয়ে আছে যার নাম নুজাইফা ইসলাম রাইসা।

প্রবাসী শাহ আলমের ছোট ভাই শাহ আমিন জিডিতে উল্লেখ করেন, ২০১৮ সালে রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের উত্তর শরীফপাড়ার ওই নারীর সঙ্গে শাহ আলমের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। তাদের একটি কন্যাসন্তানও রয়েছে। গত সোমবার ভোর ৪টার দিকে বাড়ির সবার অজান্তে সন্তানসহ রোকসানা নিরুদ্দেশ হন। ফজরের আজানের পর সবাই ঘুম থেকে উঠলেও তার সাড়াশব্দ না পেয়ে দেখতে গিয়ে রুমের দরজা খোলা পাওয়া যায়।

রুমে ঢুকে আলমিরা খোলা দেখে ত’/ল্লা’শি করে টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, মূল্যবান কাপড়চোপড় এবং অন্যান্য জিনিসপত্র পাওয়া যায়নি। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, প্রতিবেশী মোক্তার আহমদের ছেলে মো. রিদুয়ানের (২০) সঙ্গে রোকসানা পা’লি’য়ে গেছেন। ঘটনার বিষয়ে তাদের বিরু’দ্ধে কোনো ব্যবস্থা নিলে প্রবাসী স্বামী, জিডিকারী ও পরিবারের অন্য সদস্যদের নামে মোবাইলে মি’থ্যা নারী নি’র্যা/তন মা’মলার হু’/ম’কি দেন রোকসানা।

প্রবাসী শাহ আলম মোবাইল ফোনে সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, মেয়েটি ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর থেকেই রোকসানার পর’কীয়ার বিষয়টি শুনছিলাম। তাকে জিজ্ঞেস করলে অস্বী’কার করতো। আমি ছুটিতে দেশে আসতে চাইলেই বেঁ’কে বসত। বলত, ঘর বিল্ডিং করলেই আমি দেশে আসতে পারব। প্রয়োজনে তাকে সৌদি আরব নিয়ে যেতে বলত। তার কথামতো প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা বলে ঘর তোলার জন্য মাসখানেক আগে ছয় লাখ টাকা পাঠাই। বিয়েতে দেওয়া আট ভরি স্বর্ণ এবং গত মাসে ছুটিতে দেশে যাওয়া তার (স্ত্রীর) মামাকে দিয়ে মেয়ের জন্য তিন ভরি স্বর্ণ পাঠানো হয়।

শাহ আলম আরও বলেন, বাবা-মা মা’/রা যাওয়ার পর আমাদের পাঁচ ভাইয়ের দুই ভাই এক ঘরে আর তিন ভাই আলাদা ঘরে বাস করি। আমরা দুই ভাই এক ঘরে থাকি কিন্তু দুজনই প্রবাসে। বাড়ির একপাশে আমার স্ত্রী আরেক পাশে অন্য ভাইয়ের স্ত্রী থাকত। বাড়ির নিয়মিত কাজে ব্যবহার হওয়া যে সিএনজি করে চলে গেছে তার চালকের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে।

রোকসানা অসুস্থ এমনটাই জানিয়েছিল ফোনে ডেকে বলার পর তার সাথে সবকিছু নিয়ে সে তার গাড়িতে উঠেছিল। রিদুয়ানও সাথে ছিলেন। তারা প্রথমে চালকের বাসায় যায় এবং তারপর আমার শাশুড়ির নিকট গিয়েছিল। সেখান হতে তারা উধাও হয়ে গেছে। সে আমার সকল কিছু লু’/টে নিয়েই নিরুদ্দেশ হয়েছে। যিনি রোকসানার চাচা তিনি এই ঘটনার পর বিষয়টি নিয়ে তাদের ওয়ার্ড মেম্বারকেও জানিয়েছেন। তিনি ঐ সিএনজি চালকের সাথে এ সম্পর্কে কথা বলার পর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

About

Check Also

মসজিদের ইমামের কোনো দোষ নেই, জবির সেই আলোচিত ছাত্রী

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো. ছালাহ উদ্দিনকে এক ছাত্রীকে ঘিরে বিতর্কিত ঘটনার জের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *