Monday , June 24 2024
Home / Countrywide / টাকা দিয়েও পাননি নলকূপ, লাঠি হাতে চেয়ারম্যানের অফিসে বৃদ্ধ

টাকা দিয়েও পাননি নলকূপ, লাঠি হাতে চেয়ারম্যানের অফিসে বৃদ্ধ

প্রায় বছর দুই আগেই আর্সেনিকমুক্ত টিউবওয়েল জন্য চেয়ারম্যানকে ১১ হাজার টাকা দেন বৃদ্ধ আকরাম হোসেন। এরপর একের পর এক অজুহাত দিয়ে ঘুরানো হয় তাকে। আর এ ভাবে বেশকিছু দিন যাওয়ার পরও টিউবওয়েল না পেয়ে হতাশাগ্রস্থ হয়ে চেয়ারম্যানের অফিসে গিয়ে এ বিষয়টি অবগত করেন আকরাম হোসেন। কিন্তু কোনও সাড়া না পেয়ে জোরে কথা বলতেই রীতিমতো বাঁশের লাঠি নিয়ে তাকে মারতে আসেন চেয়ারম্যানের স্বামীসহ কয়েকজন যুবক। এ সময়ের তাদের কাছ থেকে লাঠিটি কেড়ে নেন তিনি।

এভাবেই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নিজের অভিযোগ জানিয়েছেন আকরাম হোসেন।

ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে যশোরের মণিরামপুর উপজেলা পরিষদে।

আকরাম হোসেন বলেন, বাড়িতে আর্সেনিকমুক্ত টিউবওয়েল বসানোর জন্য প্রায় ২ বছর আগে উপজেলা চেয়ারম্যান নাজমা খানমকে ১১ হাজার টাকা দিই। টাকা দেয়ার পর থেকে বেশ কয়েকবার তার কাছে যাই। কিন্তু আজকাল বলে টালবাহানা করতে থাকেন। আমি বৃদ্ধ এবং দরিদ্র মানুষ। রাজগঞ্জ থেকে উপজেলা পরিষদে যেতে ৭০ থেকে ৮০ টাকা খরচ হয়। কিন্তু চেয়ারম্যান আমার টিউবওয়েল দিচ্ছেন না।

তিনি আরও বলেন, সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে আমি তার কার্যালয়ে যাই। সেখানে টিউবওয়েলের কথা জানাই। কোনও সাড়া না পেয়ে জোরে কথা বললে চেয়ারম্যানের স্বামীসহ কয়েকজন যুবক আমাকে মারধর শুরু করেন। তাদের হাত থেকে বাঁচতে সিঁড়ি বেয়ে নিচে নামলে আমাকে ঘিরে ধরেন। বাঁশের লাঠি দিয়ে মারতে চাইলে কেড়ে নিয়ে তাদের মারতে উদ্যত হই। পরে সেখান থেকে চলে আসি। তবে তারা আমাকে চড়, ঘুসি ও লাথি মেরেছে। তবে টিউবওয়েলের বিষয়টি আমি স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের জানিয়েছি। তারাও নাজমা খানমকে অনুরোধ করেছেন। তাতেও কাজ হয়নি।

এই অভিযোগ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নাজমা খানম বলেন, আমি এই ব্যক্তিকে চিনি না। সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে পরিষদে হঠাৎ করে হাজির হন। আসার পর উল্টাপাল্টা কথা বলতে থাকেন। তার কাছ থেকে ৬৫ হাজার টাকা নেয়ার কথা উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিডিও ছাড়া হয়েছে। এটি সঠিক নয়। তবে নলকূপ নিতে ১০ হাজার ২০০ টাকা সরকারি খরচ দিতে হয়। উপজেলা পরিষদে ১০০ মানুষ নলকূপের আবেদন করেছেন। সেগুলো তো একবারেই দেয়া সম্ভব নয়। একেকটি করে দিতে হবে।

এদিকে ইতিমধ্যে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই শুরু হয়েছে ব্যাপক শোরগোল। এ ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়ে মন্তব্য করেছেন নেটিজেনরা। তবে বৃদ্ধ আকরাম হোসেনকে মারধরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

About

Check Also

মসজিদের ইমামের কোনো দোষ নেই, জবির সেই আলোচিত ছাত্রী

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মো. ছালাহ উদ্দিনকে এক ছাত্রীকে ঘিরে বিতর্কিত ঘটনার জের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *