Monday , April 15 2024
Home / Countrywide / বিয়ের কথা বলে দুই সন্তানের বাবার স্কুলছাত্রীর সাথে প্রেম মেলামেশা, শেষে মামলা

বিয়ের কথা বলে দুই সন্তানের বাবার স্কুলছাত্রীর সাথে প্রেম মেলামেশা, শেষে মামলা

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপায় সব্জি ব্যবসায়ী ও দুই সন্তানের পিতা আকাশ হোসেন ওরফে আক্কাস নামের এক ব্যক্তির বিরু’দ্ধে তার প্রেমিকা তার সাথে শারি’রীক মেলামেশার অভিযোগ এনে মাম’লা দা’য়ের করেছেন। সমীর শেখ যিনি ঐ তরুনীর বাবা তিনি আজ রোববার (২৪ অক্টোবর) বিকেলের দিকে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।
আকাশ হোসেন যিনি এই মা’মলার অভিযুক্ত তিনি ঐ উপজেলার কাঁচেরকোল ইউনিয়ন এলাকার জঙ্গলিয়া নামক গ্রামের আলম খন্দকারের পূত্র।

জানা গেছে, আকাশের সঙ্গে ওই স্কুলছাত্রীর দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছে। গত ২০ সেপ্টেম্বর আকাশ ভি’কটিমকে বিয়ের প্র’লোভন দেখিয়ে প্রায় ১৫ দিন ঝিনাইদহসহ বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তার সাথে শারীরিক মেলামেশা করে। পরে তিনি তাকে ফেলে পা’/লিয়ে শেখপাড়ায় ফিরে যান।

এদিকে গত ৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় আকাশের গ্রামের বাড়িতে ওঠে স্কুলছাত্রী। সেখানে ৬ দিন অনশন করেন তিনি। পরে গত ১১ অক্টোবর উপজেলার নারী ও শি’/শু অধিদপ্তর কর্মকর্তা রেশমা খানম ও কচুয়া তদন্ত কেন্দ্রের পু’/লি’শ ফোর্স গিয়ে ভু’ক্তভো’/গী ছাত্রীকে উদ্ধার করে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। প্রাথমিক ডাক্তারি পরীক্ষা শেষে ওইদিন রাতেই ভু’ক্তভো’/গী ছাত্রী বা’দী হয়ে শৈলকুপা থা’/নায় মা’মলা দা’য়ের করেন।

ভু’ক্তভো’/গী স্কুলছাত্রীর বাবা সমির শেখ বলেন, আকাশ আমার মেয়ের স’র্বনাশ করেছে। আমি তার ক’ঠোর শা’/স্তি চাই। এ ঘটনায় থা’/নায় মা’মলা হয়েছে। তবে মা’মলার ২ সপ্তাহ পেরিয়ে গেলেও আকাশ গ্রে’প্তার না হওয়ায় তিনি হতা’শা প্রকাশ করেন।

রফিকুল ইসলাম যিনি শৈলকুপা থা’/নার (ওসি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন তিনি দেশের অন্যতম একটি সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, আমি এই কিছুদিন পার হয়েছে এই থা’/নায় যোগদান করেছি। মা’মলা যে বিষয়ে হয়েছে সেটা সম্পর্কে আমি কিছু জানি না। তবে মা’/ম’লার অগ্রগতির বিষয়ে আমি খুব শীঘ্রই খোজ নিচ্ছি, অভিযুক্ত যিনি তাকে খুব শিগগিরই গ্রে’ফ/তার করা হবে বলে আশা করছি।

About

Check Also

এবার সেই জাপানি মায়ের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করল বাবা ইমরান শরীফ

জাপানি সন্তানদের বাংলাদেশি বাবা ইমরান শরিফ অভিযোগ করেছেন, জাপানি মা নাকানো এরিকো তার বড় মেয়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *