Saturday , June 15 2024
Home / Entertainment / এত বড় প্রতিষ্ঠানের আড়ালে দেহ ব্যবসা! আসল সত্য প্রকাশ

এত বড় প্রতিষ্ঠানের আড়ালে দেহ ব্যবসা! আসল সত্য প্রকাশ

“আমি আমার জীবনে এই ধরনের পরিস্থিতির প্রথম শিকার। আমারও অনেক কিছু শেখার আছে। আমি কোনো প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা করতে আসিনি। আমরা করে করেই শিখছি। সেক্ষেত্রে আমাদের ভুল হতে পারে। অনলাইনে বিক্রির পাশাপাশি রাজধানীতে কয়েকটি শোরুমে পোশাক এবং কসমেটিক্স বিক্রি করেন তিনি। সেখানকার এক ক্রেতার অভিযোগের ভিত্তিতে ভোক্তা সংরক্ষণ অধিদপ্তর গুলশানে অবস্থিত প্রধান শোরুম ‘সানভীস বাই তনি’ সিলগালা করে দেয়। এর প্রেক্ষিতেই মঙ্গলবার (১৪ মে) গণমাধ্যমকে এমনটা বলেন তনি। অভিযোগকারী অ্যাডভোকেট লুবনা সম্পর্কে তিনি বলেন, উনি অনেক ভালো একজন ক্রেতা। তার সঙ্গে আজ আমার দেখা হয়েছে, কথা হয়েছে। আমরা একসঙ্গে একটি লাইভও করেছি। অভিযোগ করে তিনি নিজেই আপসেট হয়ে গেছেন, কারণ এরপর থেকেই মানুষ আমাকে নিয়ে এত এত রসালো নিউজ, বাজে কথা, ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করে চলছে ক্রমান্বয়ে। আমার থেকে বেশি তিনি এটা নিয়ে কষ্ট পেয়েছেন।

গণমাধ্যমের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি বলেন, অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার আগেই রসালো হেডলাইনে ভিউ বাড়ানোর জন্য নিউজ করা কতটা যৌক্তিক তা আমি জানি না। আমি একজন সাধারণ ব্যবসায়ী হলে এত খবর হত না। সোশ্যাল মিডিয়ায় আমি খুব স্ট্রেইট ফরওয়ার্ড কথা বলি তাই অনেকেই আমাকে পছন্দ করেন না এবং অনেকে আমাকে আইডল মনে করেন। এখন কেউ আমাকে অপছন্দ করতে পারে, তাই আমাকে ব্যক্তিগতভাবে আক্রমণ করার, এমন বাজে ও নোংরা কথা বলার যৌক্তিকতা আমি জানি না।

তিনি আরও বলেন, এমনও আমি দেখেছি কেউ কেউ বলেছে, উনি মনে হয় এই ব্যবসার আড়ালে দেহ ব্যবসা করেন। এখন আপনারাই বলেন, যে মানুষটা প্রায় ২৫০ জন কর্মী নিয়ে এত বড় প্রতিষ্ঠান চালায় তার কি আর দেহ ব্যবসা করার দরকার আছে? ফেসবুকে আসলে মানুষ কিছু চিন্তা করে লিখে না, মনে যা আসে তাই বলে দেয়। তাই বলে গণমাধ্যমও প্রতারণার অভিযোগ তুলে নিউজ বানালো, এতে আসলে আমার ইমেজ নষ্ট হয়েছে। আমাকে বিব্রতকর পরিস্থিতি তে পড়তে হয়েছে।

তিনি বলেন, অভিযোগকারী লুবনা প্রথমে আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক পেজে অভিযোগ জানালেও আমার অফিসের কর্মীরা জবাব দেননি। বিষয়টি গুরুত্ব না দেওয়ায় এবং কোনো জবাব না পাওয়ায় লুবনা আপা ভোক্তা অভিযোগ দায়ের করেন। এক্ষেত্রে আমি বলব, একটি বিজনেস পেজে কাস্টমারদের রিপ্লাই দিতে কত লোক কাজ করে তার কোন ধারণাই নেই। আমার ব্যবসায় ৫০ জন কর্মরত। যাদের একজন দায়িত্ব পালনকালে আপনার অভিযোগকে গুরুত্বের সঙ্গে নেননি। আর মালিক হিসেবে বিষয়টি আমার জানা নেই।

তিনি আরও বলেন, এখন কোম্পানিটি আমার, আমার কর্মীরা ভুল করলে দায়ও আমার ওপর বর্তায়। অভিযোগকারী একজন শিক্ষিত নারী, আইনজীবী। তিনি আমার পক্ষে ভোক্তা অধিকারের কাছে অভিযোগ করেছেন। এরপর শুনানির তারিখ জানিয়ে ভোক্তা অধিকার থেকে আমাকে চিঠি দেওয়া হয়। চিঠিটি আমার গুলশান শাখার সেলসম্যানের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছিল, কিন্তু তিনি বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন না করে এটিকে একটি সাধারণ চিঠি বলে উড়িয়ে দেন। আমাকেও এ বিষয়ে জানানো হয়নি।

ভোক্তা অধিকারের সঙ্গে যোগাযোগ না করার কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি আরও বলেন, আমি যেহেতু এ বিষয়ে অবগত ছিলাম না, আমি এবিষয়ে যেহেতু অবগতই ছিলাম না তাহলে আমি শুনানিতে যেতাম কিভাবে। আমি যদি জানতাম তবে অবশ্যই আমি যেতাম না হয় আমার কোন স্টাফকে সেখানে পাঠাতাম। আমরা তো কেউ আইনের বাইরে না। ভোক্তা অধিকার থেকে চিঠি এসেছে মানে আমাকে সেই শুনানিতে যেতেই হবে। আমি তো কোন অনৈতিক কাজ করছি না। এটা খুব সাধারণ ঘটনা, এমনটা হতেই পারে। এটি সমাধান করতে হবে। তিনি বলেন, ভোক্তা অধিকার নিয়ে শোরুমে এলে সেলসম্যান নার্ভাস হয়ে পড়েন। আমি সেদিন রাজশাহীতে ছিলাম। তারা কোন কাগজপত্র না পেয়ে শোরুমটি সিলগালা করে দেন এবং বলেন আপনি পরে যোগাযোগ করে বিষয়টি সমাধান করবেন।

তিনি আরও বলেন, “এ ধরনের পরিস্থিতি আগে কখনো ঘটেনি, তাই এটি আমার জন্যও একটি বড় শিক্ষা।

About Nasimul Islam

Check Also

রাজ-বুবলীর বিয়ে, নেট দুনিয়া তোলপাড়

ঢালিউডের জনপ্রিয় দুই তারকা শরিফুল রাজ ও শবনম বুবলীকে বিয়ে করিয়ে দিয়েছে উইকিপিডিয়া! যেখানে বিশ্বের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *