Saturday, February 4, 2023
বাড়িNationalআরমানের মৃত্যুর সাথে আ’ লীগের সম্মেলনের কোনো ‍সম্পর্ক নাই: কাদের

আরমানের মৃত্যুর সাথে আ’ লীগের সম্মেলনের কোনো ‍সম্পর্ক নাই: কাদের

Ads

সম্প্রতি সুনামযজ্ঞে ঘটেছে একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা সেখানে আওয়ামীলীগের দুই গ্রূপের সং_ঘ_র্ষ হওয়ার কারনে সমাবেশেষে বিরূপ পরিবেশ তৈরী হয়। শুধু তাই নয় ওই ঘটে একজনের না ফেরার দেশে চলে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে।

আওয়ামী লীগকে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ দেওয়া থেকে বিরত থাকতে দেশের গণমাধ্যমকর্মীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি সুনামগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন না ফেরার দেশে যাওয়ার খবর মিথ্যা দাবি করে এমন অনুরোধ জানান তিনি

কাদের বলেন, ‘আমাদের সম্পর্কে মিথ্যা খবর দেওয়া থেকে বিরত থাকুন। এই আমার অনুরোধ. এটা ভুল এখন আপনি খবর নিতে পারেন. লোকটা কেন মারা গেল?

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) রাজধানীর বনানী বিআরটিএ কার্যালয়ে জাতীয় সড়ক নিরাপত্তা পরিষদের ২৯তম সভায় সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

গতকাল সোমবার সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনস্থলে দুই পক্ষের সং_ঘর্ষ হয়। আ_হ_ত হয়েছেন পঞ্চাশ জন। সেখানে আজমল হোসেন চৌধুরী ওরফে আরমান নামে এক ব্যক্তি মারা যান। তার মৃত্যুর কারণ হার্ট অ্যাটাক বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক।

তিনি কর্মসূচিতে ছিলেন না বলেও দাবি করেছে আওয়ামী লীগ।

নিহত ব্যক্তি সম্মেলনের কাছাকাছি ছিলেন না দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি বাড়িতে ছিলেন। বাড়ি থেকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। তিনি মারা গেছেন এখন বলা হচ্ছে আমাদের কনভেনশনে মারামারিতে একজন মারা গেছে।

ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের উপজেলা সম্মেলন ঘিরে ছোটখাটো ঘটনা ঘটেছে। বিদ্রোহীরা মঞ্চে বসে থাকলেও পরে ভালোভাবে সম্মেলন শেষ হয়। সকালে পত্রিকায় দেখলাম ১ জন মারা গেছে। এটি মৃত হওয়ার জন্য প্রথম পাতা তৈরি করেছে। সম্মেলনের আশেপাশে কোথাও এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি। আমি পুলিশ সুপারের সঙ্গে কথা বলেছি। সম্মেলনের খবর এভাবে করছেন…’

তিনি বলেন, ‘একটা ঘটনা ঘটেছে, একজন লোক দুবাইতে থাকেন। দেশে আসছে সে তার বাড়িতেই ছিল। সেখান থেকে বাসা অনেক দূরে। ঘটনাটি ঘটে বেলা ১টার দিকে সম্মেলনের সময় তিনটার দিকে তার পরিবার তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। স্ট্রোক করে মারা গেছেন, সম্মেলনের কোনো সম্পর্ক নেই। এ ঘটনা কোনোভাবেই সম্মেলনের সঙ্গে যুক্ত নয়।

সাংবাদিকদের বন্ধু আখ্যা দিয়ে ওবায়দুল কাদের তাদের উদ্দেশে বলেন, “পুরোপুরি না জানিয়ে এভাবে সংবাদ করলে, সম্মেলনে কেউ মারা গেলে প্রমাণ থাকবে। তার স্ট্রোক হয়েছে। আপনারা (সাংবাদিকরা) খবর নিন।

সম্প্রতি ছয় জেলা সম্মেলনে অংশ নেওয়ার কথা বলতে গিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘কোন সম্মেলনে এ ধরনের হৈচৈ হয়েছে? কুমিল্লায় অনুষ্ঠিত জেলা সম্মেলন তো দূরের কথা। সেই ছেদ। এমনকি মারামারিও হয়নি। কিছুই হয়নি ক্র্যাকার পপিং হয়. এমনকি সম্মেলনস্থল থেকে দূরে। আপনি তাদের যত্ন নেওয়া উচিত.

বিরোধী দল বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশের দিকে ইঙ্গিত করে এই সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, বিরোধী দল চারদিন আগে হলে আসছে, লঞ্চে আসছে, নৌকায় আসছে, হেঁটে আসছে। এটা আপনার ইচ্ছা দিন. আমরা তাদের নিষেধ করি না। এটা আপনার উপর নির্ভর করছে. সংবাদপত্রের নীতির বিষয়। তবে আমাদের সম্পর্কে মিথ্যা খবর ছড়ানো থেকে বিরত থাকুন। এই আমার অনুরোধ. এটি একটি মিথ্যা (মিথ্যা)। এটা ভুল এখন আপনি খবর নিতে পারেন. লোকটা কেন মারা গেল?

রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও মাদারীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শাজাহান খান, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন এবং বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব মো. খন্দকার এনায়েত উল্লাহ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

উল্লেখ্য, সুনামগঞ্জে লীগের সম্মেলনকে ঘিরে ক্ষমতাসীন দলের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন। এ সময় সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ মাথায় প্লাস্টিকের চেয়ার লাগিয়ে নিজেকে রক্ষা করেন। সোমবার দুপুরে দিরাই উপজেলা বিএডিসি মাঠে কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা মঞ্চে উঠার পরপরই সংঘর্ষ শুরু হয়।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments