Monday, January 30, 2023
বাড়িopinionবাইরে থেকে রিমোট দিয়ে অপারেট করা যায় ইভিএম,ব্যাখ্যা করে দেখিয়েছেন মার্কিন বিজ্ঞানী:...

বাইরে থেকে রিমোট দিয়ে অপারেট করা যায় ইভিএম,ব্যাখ্যা করে দেখিয়েছেন মার্কিন বিজ্ঞানী: শামসুল

Ads

আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে বেশ তোড়জোড় শুরু হয়েছে এই নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলো তাদের প্রুস্তুতি নিচ্ছে এখন থেকেই এবং সি সাথে নির্বাচন কমিশনও প্রুস্তুত হচ্ছে তবে বিতর্কিত হচ্ছে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন ইভিএম এ ভোট দেয়ার বিষয়টি নিয়ে ,এই ব্যাপারে সামাজিক জোগাজোগ মাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়েছেন লেখক ও বিশ্লেষক শামসুল আলম। পাঠকদের জন্য তার স্ট্যাটাসটি তুলে ধরা হল নিচে –

যতই ডিসপ্লে আর ওকালতি করুক না কেনো, ইভিএম কোনো ভোটিং মেশিন নয়, এটা একটা কাউন্টিং যন্ত্র মাত্র যা ইচ্ছেমত পরিবর্তন করা সম্ভব

ছোট বেলার কথা মনে পড়ে গেল। আজ থেকে চার দশক আগে স্কুলের বিজ্ঞান মেলার জন্য আমি একটি যন্ত্র বানিয়েছিলাম, যাতে এক পাশে বাটন চাপলে অন্য পাশে প্রশ্নের সঠিক উত্তর পাওয়া যায়। সেই সাদামাটা যন্ত্রটি পুরষ্কার পেয়েছিল। এত বছর পর দেখছি, ইভিএমের নামে অনেকটা সেই জাতের জিনিষ নিয়ে খেলা শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশে যে জিনিষটা ইভিএম নামে খাওয়ানোর চেষ্টা হচ্ছে, এটা আসলে ভোট চুরির মেশিন। নাগরিকদের ভোট একটি মুল্যবান সম্পদ যা ঐ টেপাটেপির নামে নয়ছয় করার ক্ষমতা ও এখতিয়ার কারো নাই। এই মেশিন কোনো ভোট প্রদানের মেশিন নয়, বরং ভোট চুরির মেশিন।

কেননাঃ
১) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সহ যেসব দেশে মেশিনে ভোট নেয়া হয়, সেখানে আগে কাগজের ব্যালটে ভোট দিতে হয়, সেই ব্যালট স্কান করে মেশিনে কাউন্ট করা হয়। এতে করে একজন ভোটারের ভোট প্রদানের স্থায়ী রেকর্ড থাকে। জাল জালিয়াতি বা চ্যালেঞ্জের ক্ষেত্রে ব্যালট হাজির করা সম্ভব। কিন্তু বাংলাদেশে যে পদ্ধতি, সেটি এটি হাওয়াই সিস্টেম, যাতে কোথায় ভোট দিয়েছে, আর কোথায় কাউন্ট হচ্ছে, কয়টা কাউন্ট হয়েছে, তা কেউ জানে না। এমনকি এক মার্কার ভোট আরেক মার্কায় গেলে বা এক চাপে প্রোগ্রাম করে একাধিক ভোট প্রদান করলেও চ্যালেঞ্জ করার কোনো সুযোগ নাই। ফলে এই মেশিনে ভোটের নামে একটি ছেলেখেলার আয়োজন করতে যাচ্ছে।

২) ভারতের ২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচনে ইভিএমে ভোট নিয়ে ‘হাতি’ চিহ্নে ভোট দিলে সেটা ‘পদ্মফুলে’ পড়ার বহু অভিযোগ হয়েছে। প্রযুক্তির মাধ্যমে নির্বাচনের ফল বদলে দেওয়ার গোপন চক্রান্ত প্রকাশ করতে চাওয়ায় খুন করা হয়েছিল পঞ্চায়েত এবং গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রী গোপীনাথকে। বাংলাদেশের ইভিএম ভোটেও এমন কারচুপি হয়েছে, এমনকি বিরোধী দলের মার্কা পর্যন্ত ছিল না।

৩) এই মেশিনে চিপ চেঞ্জ করে বা প্রোগ্রামিং করে বা বাইরে থেকে রিমোট দিয়ে অপারেট করা যায়। ফলে ভুতুরে ভোট দেয়া সম্ভব।

৪) আরেকটি বিষয় হলো, কোনো ভোটারের আঙ্গুলের ছাপ ম্যাচিং না করলে সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে ভোট নেয়া হয়। এই পদ্ধতিতে চাইলে শতভাগ জালভোট দেয়া সম্ভব।

৫) প্রয়াত নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার জানিয়েছিলেন, পৃথিবীর ১১টি দেশে ইভিএম চালু করতে গিয়ে ব্যর্থ হয়েছে- এটি নিরাপদ নয়, ইচ্ছামত ফল বদলানো যায়।

৬) মার্কিন কম্পিউটার বিজ্ঞানী এলেক্স হাল্ডারম্যান দেখিয়েছেন কত সহজে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন হ্যাক করে ভোটের ফলাফল পরিবর্তন করা সম্ভব। এভাবে নির্বাচনকে প্রভাবিত করা হলে কারা ও কিভাবে তা করেছে বা আদৌ নির্বাচনে কারচুপি হয়েছে কিনা তা ধরার কোনো উপায়ও থাকে না তাও দেখিয়ে দিয়েছেন হাল্ডারম্যান।
এই ভুয়া যন্ত্র দিয়ে বাংলাদেশের কোনো নির্বাচন হবে না।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments