Monday, January 30, 2023
বাড়িConutrywideসহকর্মীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, শাস্তির মুখে সিলেটের সাবেক পুলিশ সুপার সাখাওয়াত

সহকর্মীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, শাস্তির মুখে সিলেটের সাবেক পুলিশ সুপার সাখাওয়াত

Ads

পরকীয়ার ঘটনা প্রায় সময় শোনা যায় এবং এই পরকীয়ার কারনে অনেক বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটিয়ে বসে অনেকে আবার শাস্তির মুখেও পরে যান। তবে এবার খোদ পুলিশ কর্মকর্তা তার সহকর্মীর সাথে পরকীয়ায় লিপ্ত হয়েছন এবং সেই খবর নিয়ে এখন চলছে নানা আলোচনা সমালোচনা।

সহকর্মীর স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া , জুয়া থেকে টাকা আদায়, আওয়ামী লীগ নেতাকে অবৈধভাবে আটকসহ বিভিন্ন অপরাধে একজন অতিরিক্ত ডিআইজি ও তিন পুলিশ সুপারকে (এসপি) শাস্তি দিয়েছে সরকার। পুলিশ কর্মকর্তাদের একজন ছিলেন সিলেটের সাবেক এসপি (পুলিশ সুপার)

অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় এই চার ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তার মধ্যে তিনজনকে সরকারি চাকরি বিধি মোতাবেক শাস্তি হিসেবে ‘তিরস্কার’ এবং একজনকে ‘বেতন বৃদ্ধি স্থগিত’ করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ সম্প্রতি এ বিষয়ে পৃথক চারটি প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

এই চার ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা হলেন- পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত অতিরিক্ত ডিআইজি (সাময়িক বরখাস্ত) (আগের অতিরিক্ত ডিআইজি চট্টগ্রাম রেঞ্জ) মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি অফিসে সংযুক্ত পুলিশ সুপার (বর্তমানে বিশেষ দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা) কাজী মো: ফজলুল করিম, মো. গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) উপ-কমিশনার (ডিসি) মো. মিজানুর রহমান ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপ-কমিশনার (যশোরের সাবেক অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) মো: সালাহউদ্দিন শিকদার।

পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন (বর্তমানে সাময়িক বরখাস্ত) পুলিশ সদর দফতরে সংযুক্ত রয়েছেন বলে জানা গেছে। এর আগে তিনি চট্টগ্রাম রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি ও সিলেট জেলার পুলিশ সুপার ছিলেন।

সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে অভিযোগ- অধস্তন এসআইয়ের স্ত্রীসহ একাধিক নারীর সঙ্গে তার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। এছাড়া প্রায় প্রতি রাতেই মদ্যপান করে বাড়ি ফিরতেন।

অভিযোগকারী মিসেস নওশীন (ছদ্মনাম) অভিযোগ করেন, সাখাওয়াত হুসেন তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত এবং যৌতুকের দাবি করত। এ অভিযোগে পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আদালতে চারটি মামলা হয়েছে।

এসব অভিযোগের বিষয়ে জানতে গত বছর পুলিশ সদর দফতর থেকে সাখাওয়াত হোসেনকে কারণ দর্শানো হয়। পরে ডিআইজি পদমর্যাদার এক কর্মকর্তা তদন্ত করে জানতে পারেন, সাখাওয়াত হোসেন প্রায় প্রতি রাতেই বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক, একাধিক নারীর সঙ্গে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে মত্ত হয়ে বাড়ি ফিরতেন।

এছাড়া নিজের স্ত্রীকে তালাক দিয়ে এসআইয়ের স্ত্রীকে বিয়ে করেছেন বলেও প্রমাণ রয়েছে। এতে পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হয়েছে। পরে তাকে সরকারি চাকরিজীবী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধি অনুযায়ী ‘তিরস্কার’ দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, পরকীয়া বর্তমানে সামাজিক একটি ব্যাধিতে রূপান্তরিত হয়েছে এবং এই পরকীয়ার কারনে দেখা যাচ্ছে অনেক সংসার ধ্বংস হচ্ছে এবং মানুষের মনে নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। এবার সিলেটের পুলিশ কর্মকর্তার পরকীয়ার ঘটনাটি বেশ আলোচিত হয়েছে।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments