Tuesday, January 31, 2023
বাড়িpoliticsতবে কি রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন স্পিকার শিরীন শারমিন

তবে কি রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন স্পিকার শিরীন শারমিন

Ads

জাতীয় নির্বাচন এর আগেই শেষ হয়ে যাচ্ছে বর্তমান রাষ্ট্রপতির মেয়াদ যার কারনে নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হচ্ছে বর্তমানে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এর মেয়াদ ২৩ এপ্রিল শেষ হবে। অর্থাৎ, নতুন রাষ্ট্রপতি পরবর্তী নির্বাচনের সময় রাজ্যের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে অধিষ্ঠিত হবেন। তবে দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি কে হচ্ছেন তা নিয়ে চলছে নানা আলোচনা। বেশ কয়েকজনের নাম সামনে আসছে।

বাংলাদেশের ১৯ তম রাষ্ট্রপতি। জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর, ২৪ এপ্রিল, ২০১৩  , তিনি দেশের ২০ তম রাষ্ট্রপতি হিসাবে শপথ গ্রহণ করেন। আব্দুল হামিদ। ব্যক্তি হিসেবে তিনি দেশের ১৭তম রাষ্ট্রপতি। প্রথম মেয়াদ শেষে ২৪ এপ্রিল ২০১৮-এ আবার শপথ নেওয়ার পর তিনি দেশের ২১ তম রাষ্ট্রপতি হন। আগামী বছরের ২৪ এপ্রিল তার মেয়াদ শেষ হবে। তার আগেই নতুন রাষ্ট্রপতি নির্বাচন করা হবে।

আবদুল হামিদ দুই মেয়াদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। ১৯৯১ সালে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বাংলাদেশে সংসদীয় রীতি অনুযায়ী সকলেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। আবদুল হামিদই একমাত্র ব্যক্তি যিনি টানা দুই মেয়াদে দেশের রাষ্ট্রপতি হয়েছেন।

সংবিধানের ৫০(২) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘কোন ব্যক্তি পরপর বা না হোক দুই মেয়াদের বেশি রাষ্ট্রপতির পদে অধিষ্ঠিত থাকবেন না।’

টানা দুই মেয়াদে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আবদুল হামিদের ভবিষ্যতে রাষ্ট্রপতি হওয়ার কোনো সুযোগ নেই। অর্থাৎ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ সাংবিধানিক পদে নতুন কেউ আসছেন।

১৯৭২ সালের ১০ এপ্রিল শাহ আবদুল হামিদ জাতীয় সংসদের স্পিকার নির্বাচিত হন। ওই বছরের ১ মে পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। পরদিন তার স্থলাভিষিক্ত হন মোহাম্মদুল্লাহ। যিনি বাংলাদেশের চতুর্থ রাষ্ট্রপতি।

বর্তমান স্পিকারসহ স্বাধীন বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ১২ জন স্পিকার দায়িত্ব পালন করেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন মোহাম্মদুল্লাহ, আবদুর রহমান বিশ্বাস, ব্যারিস্টার মুহাম্মদ জমির উদ্দিন সরকার এবং বর্তমান রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, জাতীয় পরিষদের সাবেক স্পিকার ড.

শিরীন শারমিন চৌধুরী দ্বাদশ স্পিকার যিনি এ পর্যন্ত সংসদে দায়িত্ব পালন করেছেন। আর নারীদের মধ্যে তিনিই প্রথম বক্তা।

অনেকের ধারণা যেহেতু চারজন রাষ্ট্রপতি সাবেক বক্তা। তাই বর্তমান স্পিকারও হতে পারেন দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি। শিরীন শারমিন রাষ্ট্রপতি হলে তিনিই হবেন দেশের প্রথম নারী রাষ্ট্রপতি।

রাজনৈতিক অঙ্গনে আলোচনা শিরীন শারমিনই হতে যাচ্ছেন পরবর্তী সভাপতি। শুক্রবার (২০ জানুয়ারি) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও এর প্রভাব দেখা যায়। অনেকে তাদের নিজ নিজ ফেসবুক পোস্টে তাকে নতুন রাষ্ট্রপতি হিসেবে নাম দিয়েছেন। তবে এ ব্যাপারে কেউ কোনো সূত্র প্রকাশ করেনি।

এদিকে কয়েকদিন আগেও সভাপতি পদে আলোচনায় ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তবে ১২ জানুয়ারি সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ওই পদে যাওয়ার যোগ্যতা আমার নেই।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী আলোচনা করছেন, খোঁজখবর নিচ্ছেন। সময় হলেই জানতে পারবেন।

এদিকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীও সভাপতি পদে আলোচনায় রয়েছেন। তবে, ১২ জানুয়ারি তিনি জাতীয় সংসদের উপনেতা হন। এতে তার প্রেসিডেন্ট হওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ হয়ে গেছে।
আলোচনায় রয়েছেন- প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা মসিউর রহমান। তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে কাজ করেছেন। আবার তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত ব্যক্তি হিসেবে পরিচিত। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান দেশে ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে খুবই গ্রহণযোগ্য।

সভাপতি পদে আলোচিত আরেক ব্যক্তি হলেন একুশে পদক বিজয়ী সমাজবিজ্ঞানী ড. অনুপম সেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য।

উল্লেখ্য, এখন পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি নির্বাচন প্রসঙ্গ নিয়ে অনেকের নাম উঠেছে এসেছে এবং সেই সাথে জানা গেছে এই বিষয়টি নিয়ে খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও পর্যালোচনা করেছেন।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments