Monday, January 30, 2023
বাড়িConutrywideআমি আগেও বলেছি এখনও বলছি, 'ভালো হয়ে যান', অ্যাড. কামরুলের হুশিয়ারী

আমি আগেও বলেছি এখনও বলছি, ‘ভালো হয়ে যান’, অ্যাড. কামরুলের হুশিয়ারী

Ads

একটা সময়ে তিনি ছিলেন বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী। এরপর তিনি দায়িত্ব পান খাদ্যমন্ত্রী হিসেবে। বর্তমানে তিনি নেই কোন গুরুত্বপূর্ণ পদে। বলছিলাম বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. কামরুল ইসলামের কথা। সম্প্রতি আবারো আলোচনায় এসেছেন তিনি।সব আলাপ বাদ দিয়ে বিএনপিকে ভালো হয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. কামরুল ইসলাম।

বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা আকরাম খান মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু একাডেমির উদ্যোগে ‘বিএনপি নেতাদের মিথ্যাচার ও দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ পরামর্শ দেন।

কামরুল বলেন, ২০০৬ সালে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের ভূত দেখেছি। ন্যায়রা একবারই বেলতলায় যায়। আমরা আর এই সরকারের কাছে যাব না। বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে কি না সেটা তাদের ব্যাপার। এ বিষয়ে ঐক্যমত নেই। আমি তাদের বলব, এসব কথা বাদ দিয়ে ভালো হয়ে যান। আমি আবার বলছি, ভালো হয়ে যাও।

হত্যা ও ষড়যন্ত্রের মধ্য দিয়ে বিএনপির জন্ম হয়েছে মন্তব্য করে কামরুল ইসলাম বলেন, জিয়াউর রহমান সেনানিবাসে বসে আইএসআইয়ের প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী এই দলের জন্ম দিয়েছেন।

মুক্তিযুদ্ধের সময় আওয়ামী লীগকে ভারতের দালাল বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ভারত সব সময় জুজুকে হুমকি দিয়েছে। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ যখন পার্বত্য শান্তি চুক্তি করে তখনও বিএনপি বলেছিল, পার্বত্য এলাকা থেকে ফেনী পর্যন্ত ভারত ভারতের হবে।

সাবেক এই খাদ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রিয় নেত্রী এখন ভারত সফরে আছেন। এ নিয়ে তারা মিথ্যাও বলেছে। কিন্তু দেখেন, ছিটমহল, ফারাক্কাসহ সব চুক্তি আওয়ামী লীগ আমলে হয়েছে।

ভারতের সঙ্গে আওয়ামী লীগের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক উল্লেখ করে কামরুল ইসলাম বলেন, ভারতের সঙ্গে আমাদের দেওয়া-নেওয়া সম্পর্ক নয়। অথচ তারা এখনো মিথ্যাচার করছে, এখনো ভারত জুজুর ভয় দেখিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, সব দেশই আজ আর্থিক চাপে রয়েছে। তার একটু ছায়া পড়বে বাংলাদেশে। তারা সবকিছু নিয়ে মিথ্যা বলেছে। দ্রব্যমূল্য বেড়েছে, বিদ্যুতের ঘাটতি সারা বিশ্বে সমস্যা। এটা একটা সাময়িক পরিস্থিতি। এটা ঠিক করা হবে.

বক্তব্যের শেষ পর্যায়ে তিনি আরো বলেন, ২০১৮ সালে বিএনপি নির্বাচন নিয়ে অনেক তামাশা করেছে। আর এই কারনে সম্মানজনক আসন পায়নি। মুলত মনোনয়ন নিয়ে তামাশা করার কারনেই বিএনপির এই অবস্থা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments