Monday, January 30, 2023
বাড়িSportsসৌদির কাছে ‘বিক্রি হয়ে গেছেন’ মেসি, প্রস্তাব পেয়ে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন রোনালদো

সৌদির কাছে ‘বিক্রি হয়ে গেছেন’ মেসি, প্রস্তাব পেয়ে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন রোনালদো

Ads

গতকাল লজ্জাজনকভাবে সৌদি আরবের কাছে হেরে গিয়েছে আর্জেন্টিনা। গত মঙ্গলবার বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সৌদি আরবের বিপক্ষে ২-১ গোলে হেরে যাত্রা শুরু করে আর্জেন্টিনা। দলের এমন হতাশার মধ্যেই উঠে এল অধিনায়ক মেসিকে নিয়ে চাঞ্চল্যকর কিছু তথ্য যা এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা তৈরী করেছে।

সৌদি আরবের সঙ্গে মেসির সম্পর্কের অনেক তথ্য তুলে ধরেছে মার্কিন ক্রীড়া সংবাদমাধ্যম ‘দ্য অ্যাথলেটিক’।
আগামী বিশ্বকাপ অর্থাৎ ২০২৬ সালের আয়োজক দেশ ইতিমধ্যেই ঠিক হয়ে গেছে। অনুষ্ঠানটি যৌথভাবে আয়োজন করবে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও মেক্সিকো। পরবর্তী বিশ্বকাপ, অর্থাৎ ২০৩০ কে হোস্ট করবে সে বিষয়ে এখনও কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি৷ আগামী বছর ফিফার ৭৪ তম কংগ্রেসে বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে৷ আয়োজক নির্ধারণ না হলেও বেশ কয়েকটি দেশ আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

স্পেন, পর্তুগাল এবং ইউক্রেন আনুষ্ঠানিকভাবে ২০৩০ বিশ্বকাপ আয়োজনের ইচ্ছা প্রকাশ করেছে। তবে তাদের দুই প্রতিদ্বন্দ্বী জোট এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের উদ্দেশ্য ঘোষণা করেনি। প্রথমটি দক্ষিণ আমেরিকার তিনটি দেশ- আর্জেন্টিনা, উরুগুয়ে, প্যারাগুয়ে এবং চিলি। দ্বিতীয় জোট হিসেবে এই তালিকায় রয়েছে সৌদি আরব, মিসর ও গ্রিস।

দক্ষিণ আমেরিকার জোট আনুষ্ঠানিকভাবে আয়োজক হওয়ার ঘোষণা না দিলেও ইঙ্গিত দিয়েছে। ২০১৭ সালে আর্জেন্টিনা এবং উরুগুয়ের মধ্যে একটি ম্যাচে লুইস সুয়ারেজ ২০ নম্বর জার্সি পরেছিলেন; আর মেসির ৩০ নম্বর জার্সি। তখন বোঝা গেল, ২০৩০ সালের বিশ্বকাপ আয়োজনের ইঙ্গিত দিতেই তারা এমন জার্সি পরছেন।

“মেসি এবং সুয়ারেজ আমাদের সাথে এই প্রচেষ্টায় যোগ দেবেন,” পরের বছর এএফপিকে বলেছেন, দক্ষিণ আমেরিকার তিনটি হোস্টিং প্রচেষ্টার কো-অর্ডিনেটর ফার্নান্দো মারিন। আমরা তাকে (মেসি) আমাদের লক্ষ্য সম্পর্কে বলেছি এবং কাজটি করা সম্ভব বলে মনে হচ্ছে। তিনি আমাদের সাহায্য করতে চান. ‘

ঘটনা এখানেই থেমে যেত। কিন্তু এই পরিকল্পনার মূলে থাকা মেসি ঘুরে দাঁড়ান মে মাসে। সৌদি আরবকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে তিনি দেশটির ‘ভিশন ২০৩০’ বাস্তবায়নে একটি আকর্ষণীয় চুক্তি করেন। এই চুক্তির বিষয় ছিল সৌদি পর্যটনকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরা। একইসঙ্গে দেশের ‘ভিশন ২০৩০’ প্রকল্পের সঙ্গে সম্পৃক্ত। এই প্রকল্পের সাথে সম্পর্কিত সৌদির পরিকল্পনা ২০৩০ বিশ্বকাপ আয়োজনের।

এখন ব্যাপারটা দাঁড়িয়েছে, নিজের দেশের বিপক্ষে যাচ্ছেন মেসি। কারণ সৌদির ‘ভিশন ২০৩০ ‘কে ঘিরে তারা নানা পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে। এর অংশ হিসাবে, অ্যাথলেটিক বলছে, দেশটি সৌদি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন কোম্পানির অর্থায়নে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ ক্লাব নিউক্যাসল কিনেছে, গল্ফ ট্যুর আয়োজন করেছে, ফর্মুলা ওয়ান আয়োজন করেছে এবং ২০১৯ সালে একটি হেভিওয়েট বক্সিং ম্যাচ আয়োজন করেছে।

ডেনিস হোরাক, যিনি ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সৌদি আরবে কানাডার রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন, দ্য অ্যাথলেটিককে বলেছেন, “এটি (সৌদি) খেলাধুলার জন্য এগিয়ে আসার জন্য ভিশন ২০৩০ এর একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ।” মেসিকে জড়িয়ে বিষয়টিকে অন্য মাত্রায় নিয়ে যেতে চায় যুক্তরাষ্ট্র। জিনিসগুলিকে আরও বৈশ্বিক করতে চায়, সৌদিরা তাদের ভাবমূর্তি পুনঃব্র্যান্ড করার চেষ্টা করছে। ‘

এদিকে, মেসির সঙ্গে সৌদি আরবের পর্যটন চুক্তির মেয়াদ ও বিষয়বস্তু এখনো প্রকাশ করা হয়নি। এ বিষয়ে মেসির প্রতিনিধিরা কিছু বলছেন না। এমনকি ‘দ্য অ্যাথলেটিক’ বিষয়টি জানতে সৌদি সরকারকে মেইল ​​করেছে। কিন্তু তারা কোনো উত্তর দেয়নি। যদিও এটি স্পষ্ট নয়, তবে এখন বোঝা যাচ্ছে যে মেসি তার নিজের মাতৃভূমিকে বাদ দিয়ে তাদের ‘ভিশন ২০৩০ ‘ বাস্তবায়নে সৌদি আরবের সাথে কাজ করছেন। পর্তুগিজ তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকেও একই চুক্তির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল; যদিও টাকার পরিমাণ কম ছিল। কিন্তু তিনি রাজি হননি।

এছাড়া সৌদি আরবের বিপক্ষে বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার প্রথম ম্যাচের আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে আরব দেশের সঙ্গে তার পর্যটন চুক্তি নিয়ে কোনো প্রশ্নের উত্তর দেননি মেসি। এই তথ্যও জানিয়েছে ‘দ্য অ্যাথলেটিক’। ‘ এখন আর্জেন্টিনা ২০৩০ বিশ্বকাপের যৌথ আয়োজক হতে চায়, এবং মেসি তার স্বদেশী ‘প্রতিদ্বন্দ্বী’ দেশকে পর্যটনে সহায়তা করছেন – পুরো বিষয়টি পরস্পরবিরোধী, মেসির প্রাক্তন সতীর্থ ম্যাক্সি রদ্রিগেজ বলেছেন, “হ্যাঁ, তিনি। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘সত্যি বলতে কী হবে আমরা জানি না। বিশ্বকাপ আয়োজন সহজ বিষয় নয়। তবে একজন আর্জেন্টাইন হিসেবে আমি চাই বিশ্বকাপ আমার দেশেই আয়োজন করা হোক। এদিকে, ফার্নান্দো মারিন দাবি করেছেন, “২০৩০ বিশ্বকাপ আয়োজনের জন্য দক্ষিণ আমেরিকার প্রচেষ্টার একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ হবেন মেসি।” এরপর বিষয়টি কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, সেটাই এখন দেখার বিষয়।

উল্লেখ্য, গতকাল নিজেদের প্রথম ম্যাচে খেলতে নেমে বড় ধাক্কা খেল আর্জেন্টিনা। শুরুতে ভাল করলেও শেষের দিকে পরাজয় বোরন করেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে শক্তিশালী এই দলকে।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments