Monday, January 30, 2023
বাড়িpoliticsসরকার একজন আমলাকে রাষ্ট্রপতি বানানোর পদক্ষেপ নিচ্ছে : ড. জাফরুল্লাহ

সরকার একজন আমলাকে রাষ্ট্রপতি বানানোর পদক্ষেপ নিচ্ছে : ড. জাফরুল্লাহ

Ads

রাজনৈতিক অঙ্গনে এখন নতুন করে আলোচনা উঠেছে একটি বিষয় নিয়ে আর সেটি হচ্ছে নতুন রাষ্ট্রপতি কে হতে যাচ্ছেন অনেকেই এই বিষয় নিয়ে নানা মতামত দিচ্ছেন তাই ধারাবাহিকতায় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন সরকার রাজনীতিবিদকে রাষ্ট্রপতি না বানিয়ে আমলাকে রাষ্ট্রপতি করার পদক্ষেপ নিচ্ছে। শনিবার (৭ জানুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবে ফেলানী দিবস উপলক্ষে ‘সীমান্তে বিএসএফ থামবে কবে’ শীর্ষক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জাফরুল্লাহ বলেন, অনেকেই বলতে পারবেন এর প্রমাণ কী। তার প্রমাণ খুব সাধারণ রাষ্ট্রপতি নির্বাচন। এই রাষ্ট্রপতি মৃদুভাষী, মুক্তিযোদ্ধা ও আমলা। দীর্ঘদিন সরকারের সঙ্গে যুক্ত এই আমলাকে (সেই ব্যক্তি) রাষ্ট্রপতি করা হলে তিনি সহজেই টেলিফোনের মাধ্যমে সব ডিসি স্যারের সঙ্গে ওসি স্যারদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, একজন রাজনীতিকের কিছু বিবেক থাকে কিন্তু আমলাদের বিবেক থাকে না, তারা সরকারের দালাল হয়ে বেঁচে থাকে। এর মাধ্যমে তারা সেক্রেটারি থেকে সিনিয়র সেক্রেটারি এবং এরপর তারা আইএমএফের কাছে যায়। তাই আমলারা এই লাভের আশায় সরকারের সেবা করে যাচ্ছেন। আর এই মানুষগুলোই হবেন প্রেসিডেন্ট।

সরকার ভয়ঙ্কর নির্বাচনের পরিকল্পনা করছে উল্লেখ করে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, সরকারি বেতন-ভাতা নিয়ে তিন বছরের মধ্যে কেউ রাজনীতিতে আসতে পারবে না এমন নিয়ম আছে। কিন্তু এইচ টি ইমাম সাহেব ইন্তেকাল করেছেন তার জায়গায় এমন একজনকে নিয়োগ দিয়েছেন যিনি কয়েকদিন আগে মন্ত্রিপরিষদ সচিব ছিলেন। যে কেউ মন্ত্রিপরিষদ সচিব ও ওসির সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করতে পারেন। তাই এটা প্রমাণ করে সরকার ভয়ঙ্কর নির্বাচনের পরিকল্পনা করছে। এবার আর দিনে ভোট হবে না রাতে। সকালে ৬০ -৭০ শতাংশ ভোট দেবেন ওসি সাবের ও আমলারা। বাকি ৩০টা হবে সকাল নয়টার পর। আমরা কি এটা মেনে নিতে পারি? এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

আগামী নির্বাচনে সরকারকে প্রতিহত করতে বিরোধী দলগুলোকে লাখ লাখ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগের পরামর্শ দিয়ে গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা বলেন, বিরোধী দলগুলো বলছে দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে না। এটাকে প্রতিহত করতে হবে। তবে সরকার নির্বাচন করবে। তাই এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। লক্ষ লক্ষ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ ও প্রশিক্ষণ দিতে হবে। যাতে তারা সারারাত ভোটকেন্দ্র পাহারা দিতে পারে। যাতে তারা কোনো ধরনের চক্রান্ত করতে না পারে।

উল্লেখ্য, নতুন রাষ্ট্রপতি কে হচ্ছেন তা নিয়ে এখন থেকেই সবার মধ্যে নানা জল্পনা কল্পনা রয়েছে এবং সেই সাথে দেখা যাচ্ছে অনেকে এই বিষয় নানা মিশ্র প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করছনে এবং অনেকেই চিন্তা করছেন এই বিষয় নিয়ে।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments