Monday, January 30, 2023
বাড়িConutrywideদুই শিশুর থেকে মাকে গভীর রাতে তুলে নিলো পুলিশ, ঢাকা থেকে ছুটে...

দুই শিশুর থেকে মাকে গভীর রাতে তুলে নিলো পুলিশ, ঢাকা থেকে ছুটে গেলেন শামা ওবায়েদ, নিপুনরা

Ads

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই সরকারের সমালোচনা করেন এবং নানানভাবে বিপাকে পরে যান ঠিক তেমনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে আপত্তিকর পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে রাজবাড়ীতে গ্রেফতার হয়েছে সোনিয়া আক্তার স্মৃতি নামের এক নারী।

এদিকে সোনিয়াকে সব ধরনের সহযোগিতা দেবে বিএনপি সেই লক্ষে রাজবাড়ীতে ৪ সদস্যের প্রতিনিধি দল গিয়েছেন এবং স্মৃতির দুই সন্তানের পাশে দাঁড়িয়েছে বিএনপি।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা থেকে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সেলিমুজ্জামান সেলিম, নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরীসহ চার সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল স্মৃতি রাজবাড়ী শহরের ৩ নম্বর বেরডাঙ্গা বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেন। এ সময় সোনিয়া আক্তার স্মৃতির দুই সন্তানকে আর্থিক সহায়তা দেন বিএনপির এই প্রতিনিধি দল। সোনিয়াকে আইনিসহ সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়।

গত মঙ্গলবার রাতে রাজবাড়ী শহরের তিন নম্বর বড়ডাঙ্গা এলাকা থেকে স্মৃতিকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি রাজবাড়ী রক্তদাতা সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং জেলা মহিলা দলের সদস্য। নগরীর তিন নম্বর বেরাডাঙ্গা এলাকায় থাকেন সোনিয়া।

শামা ওবায়েদ বলেন, সোনিয়া আক্তারের স্মৃতি রক্ষার্থে বিএনপির পক্ষ থেকে সব ধরনের আইনি সহায়তা করা হবে। বিষয়টি নিয়ে ইতোমধ্যে আইনজীবীদের সঙ্গে কথা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের একমাত্র লক্ষ্য দমননীতির মাধ্যমে ক্ষমতায় থাকা। আপনি শহিদুল আলমের কথা শুনেছেন, মাহমুদুর রহমানের কথা জানেন, মোস্তাকের কথা ভুলে যাননি- অনেক সাংবাদিক ও ব্লগার যারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি করেছেন বা তাদের মুক্ত চিন্তার কারণে সরকারের আগুনের কবলে পড়েছেন। সাংবাদিকদের বলব, আপনারা এসবের প্রতিবাদ করবেন। কারণ, সাগর-রুনিকে আমরা এখনো ভুলিনি। আমরাও স্মৃতি ভুলব না। তার ৯ বছরের একটি মেয়ে ও ১৩ বছরের একটি শিশু রয়েছে এবং বিএনপি তার পরিবারের সাথে রয়েছে।

সেলিমুজ্জামান সেলিম বলেন, মাঝরাতে মায়ের কাছ থেকে দুই সন্তান কেড়ে নেওয়াটা হৃদয়বিদারক।

নিপুণ রায় চৌধুরী বলেন, ‘বিএনপি শুধু সোনিয়া আক্তারের স্মৃতির জন্য নয়, সরকার কর্তৃক নির্যাতিত প্রতিটি পরিবারের দায়িত্ব নেবে। আমাদের ক্ষমতার দরকার নেই; মানুষের ভালোবাসা চাই। এই ভালোবাসাই বিএনপির শক্তি। এই শক্তি নিয়েই এগিয়ে যাবো।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট লিয়াকত আলী বলেন, রাতে তাকে গ্রেপ্তার করার কী দরকার ছিল? আইন আছে, রাতে কোনো নারীকে এভাবে গ্রেপ্তার করা যাবে না। কেড়ে নেওয়া পুলিশের বিরুদ্ধে আমরা মামলা করেছি। স্মৃতির বিরুদ্ধে অভিযোগে বলা হয়েছে, স্মৃতির ফেসবুকে সানিয়া আখতারের পোস্ট প্রধানমন্ত্রীর মানহানি করেছে। তাহলে মানহানিকর ব্যক্তি মামলা করবে; অন্য কেউ এসে তার পক্ষে মামলা করতে পারবে না। কোনো তৃতীয় পক্ষ মামলা করতে পারে না। এটা আইনের কোন শ্রেণীতে পড়ে না।

এর আগে সোমবার সন্ধ্যায় সোনিয়া আক্তারের ফেসবুক পোস্টের বিষয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা সামছুল আরেফিন চৌধুরী রাজবাড়ী সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। পরে অভিযোগটি মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৩১ আগস্ট সোনিয়া আক্তার স্মৃতি তার নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক থেকে একটি স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি ভাষণের সমালোচনা করে ‘আপত্তিকর’ শব্দ লেখেন। ওই পোস্টে প্রধানমন্ত্রীর মানহানি ও মানহানির অভিযোগ উঠেছে।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments