Monday, January 30, 2023
বাড়িNationalযুক্তরাজ্যে ৭ জন ও যুক্তরাষ্ট্রে ১৩ জন মন্ত্রী, বাংলাদেশের মতো বেশি মন্ত্রী...

যুক্তরাজ্যে ৭ জন ও যুক্তরাষ্ট্রে ১৩ জন মন্ত্রী, বাংলাদেশের মতো বেশি মন্ত্রী কোনো দেশে নেই :প্রতিমন্ত্রী

Ads

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকারের মন্ত্রিপরিষদ রয়েছে এবং তারা তাদের দায়িত্ব পালন করে থাকেন সেই অনুপাতে দেখা যায় ইউরোপরের দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রতে মাত্র ১৩ জন মন্ত্রী রয়েছে এবং যুক্তরাজ্যে রয়েছে ৭ জন। তারা য্থায্থভাবে তাদের কর্মকান্ড করে থাকে নির্বিঘ্নে। তবে ঐসকল দেশের তুলনায় বাংলাদেশে মন্ত্রীদের সংখ্যা অনেক বেশি।

বাংলাদেশে ৫৫টি বিভাগে ৪৮ জন মন্ত্রী রয়েছেন। এত বড় সরকার বা মন্ত্রী আর কোনো দেশে দেখা যায় না। যুক্তরাজ্যে সাতজন এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৩ জন মন্ত্রী। আমাদের দেশে সময়ের অপচয় হবে। এত বড় মন্ত্রিসভার জন্য আমাদের দেশে সমন্বয়ের অভাব দেখি। তিনি আরও বলেন, সবকিছু প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা চলছে। সবকিছু কেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে যেতে হবে? প্রত্যেকের উচিত ভালো, কার্যকর ও জবাবদিহিমূলক নগর সরকার প্রতিষ্ঠা করা।

পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম ‘পুঁজি পরিকল্পনা ও উন্নয়ন’ শীর্ষক সেমিনার এবং মুক্ত আকাশের ধ্রুবতারা বইয়ের মোড়ক উন্মোচনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি সরকারের প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, আমাদের সরকার গৃহহীনদের জন্য ঘরের ব্যবস্থা করেছে। আমরা পরিকল্পিত শহরগুলিকে উত্সাহিত করি। সরকার সব শ্রেণির মানুষের জন্য আবাসন দেওয়ার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে।

নগর কাজের সমন্বয়ের কথা উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, একটি দেশে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় থাকলে সমন্বয়ের সমস্যা হয়। বিদেশের কিছু শহরে গভর্নর থাকে। এটা কি এদেশে ভাবা যায়? শহরের সবকিছু কে দেখবে। আমাদের দেশের নগর ব্যবস্থাপনা মডেল কলকাতা এবং দিল্লির সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তাই প্রচলিত চিন্তা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন নগর গবেষণা কেন্দ্রের সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (রাজউক) চেয়ারম্যান ড. আনিসুর রহমান মিয়া, পিএএ এবং চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর (ডিএফপি) এস এম গোলাম কিবরিয়া। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রকৌশলী ও পরিকল্পনাবিদ ড. এমদাদুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মুক্ত আকাশ ধ্রুবতার উপদেষ্টা সম্পাদক ও রিহ্যাবের সাবেক সভাপতি ড. আব্দুল আউয়াল। স্বাগত বক্তব্য দেন মুক্ত আকাশ ধ্রুবতার সম্পাদক ও প্রকাশক ড. শামসুল আলম। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কর্মরত প্রকৌশলী, পেশাজীবী ও মুক্ত আকাশের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, রাজউকের কর্মীরা অদক্ষ, গাজীপুর ও ঢাকায় পরিকল্পনা করা হচ্ছে। কিন্তু তুমি কি করছ! কাজটি করা হচ্ছে না। সবার জন্য থাকার ব্যবস্থা করতে হবে। তবে তাকে প্রথমে গরীব, বস্তিবাসীদের জন্য কিছু করতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে ড. আবদুল আউয়াল বলেন, এদেশের নাগরিকদের কাছে আমরা দায়বদ্ধ। আমরা যদি ভাবি দেশের জন্য আমরা কী করেছি তাহলে দেশ আমাদের কাছ থেকে ভালো কিছু পাবে। সারাদেশের মানুষ ঢাকায় আসছে, তাই আমাদের এই শহরকে বাঁচাতে হবে। আর এর প্রধান দায়িত্ব সরকারের।

প্রসঙ্গত, বহির্বিশ্বের অনেক দেশের সরকারের মন্ত্রীদের সংখ্যা কম এবং এত কমসংখক মন্ত্রী নিয়ে কিভাবে তারা তাদের দেশ পরিচালনা করে থাকে তা অনেকের কাছে বিস্ময় লাগে ,মূলত তাদের এক একটি শহরে এক এক জন গভর্নর থাকে যার ফলে তাদের কর্মকান্ড নির্বিঘ্নে হয়ে থাকে।

Looks like you have blocked notifications!
Ads
[json_importer]
RELATED ARTICLES

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

Most Popular

Recent Comments